এশিয়ার জলবায়ুর বৈচিত্রের কারণ গুলি লেখ

হ্যালো বন্ধুরা, আজকে আমরা এশিয়ার জলবায়ুর বৈচিত্রের কারণ অথবা এশিয়া মহাদেশের জলবায়ুর বৈচিত্রের কারণ গুলি কি কি তা নিয়ে আজকের এই পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করছি । মাধ্যমিক পরীক্ষায় এই প্রশ্নটি প্রায়ই এসে থাকে তাই প্রশ্নটি মন দিয়ে পড়ুন এবং বন্ধুদের সাথেও শেয়ার করুন ।

এর আগের পোস্টে আমরা ভারতের জলবায়ুর বৈশিষ্ট্য গুলি কি কি তা নিয়ে আলোচনা করেছিলাম ।

এশিয়ার জলবায়ুর বৈচিত্রের কারণ গুলি লেখ

এশিয়ার জলবায়ুর বৈচিত্রের কারণ

এশিয়া চরম বৈচিত্রপূর্ণ দেশ । এশিয়া মহাদেশের মতো চরম বৈচিত্রপূর্ণ মহাদেশ আর কোন মহাদেশেই নেই । অক্ষাংশের ব্যাবধান, ভূপ্রকৃতির প্রভাব, সমুদ্র থেকে দূরত্ব, সমুদ্রস্রোতের প্রভাব, সমুদ্রস্রোতের উচ্চতা প্রভৃতির কারণে এশিয়া মহাদেশের বিভিন্ন অংশে জলবায়ুর চরম বৈচিত্র্য লক্ষ্য করা যায় ।

জলবায়ুর বৈচিত্রের কারণগুলি হল-

১) অক্ষাংশের প্রভাব- উত্তরে ৭৮ ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশ থেকে দক্ষিণে ১০ ডিগ্রি দক্ষিণ অক্ষাংশ পর্যন্ত এশিয়া মহাদেশের বিস্তৃতি । অক্ষাংশের এই বিরাট পার্থক্যের জন্যই এশিয়া মহাদেশের বিভিন্ন অঞ্চলে উষ্ণতার চরম পার্থক্য লক্ষ্য করা যায় । এশিয়া মহাদেশের উত্তর অংশে যেমন উষ্ণতা কম থাকে ঠিক তেমনি দক্ষিণ অংশে উষ্ণতার পরিমাণ সারা বছর ধরেই বেশী থাকে । এশিয়া মহাদেশের জলবায়ুর বৈচিত্রের এটি একটি প্রধান কারণ হল এই অক্ষাংশের প্রভাব।

২) ভূপ্রকৃতির প্রভাব- এশিয়া মহাদেশের মধ্যভাগে সুউচ্চ পর্বতশ্রেণী প্রাচীরের মতো পূর্ব-পশ্চিমে বিস্তৃত থাকায় উত্তর ও দক্ষিণ অংশে উষ্ণতা ও বৃষ্টিপাতের বিরাট পার্থক্যের ফলে এশিয়া মহাদেশে বিভিন্ন রকম জলবায়ু দেখা যায় ।

৩) সমুদ্রস্রোতের প্রভাব- অক্ষাংশ অনুসারে এই শীতল জলবায়ুর অন্তর্গত হলেও উষ্ণ কুরোশিয়ো স্রোত এশিয়ার পূর্ব ও উত্তর পূর্ব উপকূলের পাশ দিয়ে প্রবাহিত হওয়ায় এই অঞ্চলে সারাবছর ধরে নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু পরিলক্ষিত হয় ।

৪) বায়ুপ্রবাহের প্রভাব- ঋতুগত পরিবর্তনের ফলে এশিয়া মহাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাংশে মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে মৌসুমি জলবায়ু দেখা দেয় এবং উত্তর পশ্চিমাংশে পশ্চিমা বায়ুর প্রভাবে ভুমধ্যসাগরীয় জলবায়ু বিরাজ করে ।

৫) সমুদ্র থেকে দূরত্ব- এশিয়া মহাদেশের আয়তন বিশাল হওয়ায় এশিয়া মহাদেশের মধ্যভাগ যেকোনো সমুদ্র থেকে অনেক দূরে অবস্থিত । সমুদ্র থেকে অনেক দূরে অবস্থিত হওয়ায় সমুদ্রের কোনরকম প্রভাব এই মহাদেশে পড়ে না তাই এখানকার জলবায়ু চরমভাবাপন্ন অর্থাৎ গ্রীষ্মকালে প্রচুর গরম এবং শীতকালে প্রচুর শীত পরিলক্ষিত হয় ।

৬) সমুদ্র থেকে উচ্চতা- এশিয়ার মধ্যভাগের পার্বত্য অঞ্চল সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে অনেক উঁচুতে অবস্থিত হওয়ায় এখানে সারাবছর ই প্রায়ই বরফাছন্ন থাকে । যেসব অঞ্চলগুলি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে নীচে অবস্থিত সেই সব অঞ্চলগুলিতে উষ্ণতা অনেক বেশী হয় ।

wbupdates.in আমাদের ওয়েবসাইট এ শিক্ষামূলক পোস্ট করা হয় । ওয়েব সাইট টি বুকমার্ক করুন যাতে যেকোনো প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে আপনাদের সুবিধা হয় ।

আরও পড়ুন-

নদীর সঞ্চয় কার্যের ফলে সৃষ্ট ভূমিরূপ গুলি আলোচনা কর

হিমবাহের ক্ষয়কার্যের ফলে সৃষ্ট ভূমিরূপ ছবি সহ

পৃথিবীর আবর্তন গতি কাকে বলে। আবর্তন গতির ফলাফল

Leave a Comment