গান্ধীজির ডান্ডি অভিযান এর সংক্ষিপ্ত বিবরণ দাও?

হ্যালো বন্ধুরা, আজকের এই পোস্টে আমরা গান্ধীজির ডান্ডি অভিযান এই প্রশ্নের উত্তরটি বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করছি । মাধ্যমিক এর এই প্রশ্নটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং পরীক্ষাতে এই প্রশ্নটি বার বার ই এসে থাকে তাই প্রশ্নটি মন দিয়ে পড়ুন এবং বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন ।

এর আগের পোস্টে আমরা দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্তের কৃতিত্ব আলোচনা করো এই প্রশ্নের উত্তরটি আলোচনা করেছিলাম ।

গান্ধীজির ডান্ডি অভিযান

গান্ধীজির ডান্ডি অভিযান

গান্ধীজী ও তার ৭৮ জন অনুগামী সহ ১৯৩০ খ্রিস্টাব্দের ১২ ই মার্চ গুজরাটের সবরমতি আশ্রম থেকে ডান্ডি নামক জায়গা পর্যন্ত এক দীর্ঘ পদযাত্রা করেন । এই দীর্ঘ পদযাত্রার মূল উদ্দেশ্য ছিল লবন-আইন ভঙ্গ । গান্ধীজী নিজে ডান্ডিতে গিয়ে লবণ আইন প্রত্যাহার করে আইন ভঙ্গ আন্দোলনের সূচনা করে । এই আন্দোলন সম্পর্কে নেতাজী সুভাষচন্দ্র তার এই পদযাত্রা সম্পর্কে বলেছেন – “এটা ছিল একটি মহান আন্দোলনের মহান সূচনা” । আইন অমান্য আন্দোলন ভারতের স্বাধীনতা সংগ্রাম কে আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয় গিয়েছিল ।

ডান্ডি অভিযানের পদযাত্রা

গুজারাটের সবরমতি আশ্রম থেকে ডান্ডির দূরত্ব ছিল ২৭১ মাইল এই দীর্ঘ পথ গান্ধীজী ও তার অনুগামীরা পায়ে হেঁটেই পৌঁছেছিলেন । অবশেষে দীর্ঘ ২৪ দিনের পদযাত্রা করে গান্ধীজী শেষ পর্যন্ত ৫ই এপ্রিল ডান্ডিতে পৌঁছান ।

বয়কট এর আদেশ

গান্ধীজী সমগ্র দেশবাসীকে খাজনা বন্ধ বয়কট করে সরকারী চাকরি ত্যাগ করার আহ্বান জানান । গান্ধীজীর এই আদেশ এর পর সমগ্র দেশ জুড়ে এক গভীর আলোড়নের সৃষ্টি হয় । এই আন্দোলনে গান্ধীজী বিপুল জনসমর্থন পেয়েছিলেন । গান্ধীজী প্রমাণ করে দিয়েছিলেন যে কিভাবে অহিংস ভাবে এইরকম বিপুল আন্দোলন করা যায় ।

গান্ধীজী দ্বারা লবণ আইন ভঙ্গ

১৯৩০ খ্রিস্টাব্দের ৬ এ এপ্রিল ভোরবেলায় আরব সাগরে স্নান করে গান্ধীজী ডান্ডির তীরে লবণ তৈরি করে নিজ হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে লবণ আইন প্রত্যাহার করেন । গান্ধীজী লবণ আইন প্রত্যাহার করার পর ই সমগ্র দেশজুড়ে শুরু হয় আইন অমান্য আন্দোলন ।

মুল্যায়ন- গান্ধীজী কর্তৃক ডান্ডি অভিযান কে অনেক জাতীয় নেতা সমর্থন জানিয়ে প্রশংসা করেছিল । নেতাজী সুভাষভচন্দ্র বসু গান্ধীজীর ডান্ডি অভিযান কে নেপোলিয়নের এলবা দ্বীপ থেকে প্যারিস প্রত্যাবর্তন এর সঙ্গে তুলনা করেছিলেন । গান্ধীজীর মতে জল ও লবণ ই হল মানুষের একমাত্র বস্তু যা মানুষের খাদ্যে থাকা অত্যন্ত জরুরি ।

ডান্ডি অভিযান সম্পর্কে ঐতিহাসিক তারাচাঁদ বলেছেন, “লবণ সত্যাগ্রহের মধ্যে, নিপুণ কৌশলের সব উপাদান ই ছিল” ।

আরও পড়ুন-

বাংলার নবজাগরণের প্রকৃতি, বৈশিষ্ট্য ও ফলাফল আলোচনা কর

আর্যভট্ট রচিত তিনটি গ্রন্থের নাম লেখ?

FAQ

ডান্ডি অভিযান কবে হয়েছিল?

ডান্ডি অভিযান শুরু হয়েছিল ১৯৩০ খ্রিস্টাব্দের ১২ই মার্চ এবং তা শেষ হয় ৫ই এপ্রিল ।

ডান্ডি অভিযান কে করেছিলেন?

ডান্ডি অভিযান করেছিলেন গান্ধীজী ।

ডান্ডি অভিযান কোথা থেকে শুরু হয়?

ডান্ডি অভিযান শুরু হয় গুজরাটের সবরমতি আশ্রম থেকে ।

Leave a Comment