তিতুমিরের বিদ্রোহ অথবা তিতুমিরের বারাসাত বিদ্রোহ

বন্ধুরা, আজকে আমরা তিতুমিরের বিদ্রোহ অথবা তিতুমিরের বারাসাত বিদ্রোহ নিয়ে আজকের এই পোস্ট এ বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করছি । আজকের এই পোস্ট টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ বারাসাত বিদ্রোহে তিতুমিরের অবদান এক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল । পোস্ট টি প্রথম থেকে শেষ অব্দি পড়ুন এবং পোস্টটি বন্ধুদের সাথেও শেয়ার করুন ।

তিতুমিরের বিদ্রোহ

এর আগের পোস্ট এ আমরা খানুয়ার যুদ্ধ কবে হয়, গুরুত্ব ও ফলাফল নিয়ে আলোচনা করেছিলাম ।

তিতুমিরের বিদ্রোহ

বাংলায় ওয়াহাবি আন্দোলনের প্রাণপুরুষ ছিলেন তিতুমির । বারাসাত আন্দোলনে তিতুমির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিেেন । তিতুমির এর আসল নাম ছিল মির নিশার আলি কিন্তু তিনি তিতুমির নামেই বেশী পরিচিত ছিলেন । স্যার সৈয়দ আহম্মদ এর শিষ্যত্ব গ্রহণ করে তিনি বাংলায় ওয়াহাবি আদর্শ প্রচার করেন ।

অনুগামীদের প্রতি তিতুমিরের বক্তব্য ছিল –

১) ওয়াহাবি আদর্শের ব্যাক্তিরা সুদে টাকা খাটাতে পারবে না ।

২) পির- পয়গম্বর ও মন্দির মসজিদ মানার কোন দরকার নেই ।

৩) ওয়াহাবি অনুগামীদের দাঁড়ি রাখতে হবে ।

আন্দোলনের বিস্তার- তিতুমিরের আহ্বানে মালদহ, নদীয়া, ২৪ পরগণা, ঢাকা, পাবনা, রাজশাহী প্রভৃতি অঞ্চলে তিতুমিরের আন্দোলন শুরু হয় ।

বাঁশের কেল্লা – জমিদারদের সঙ্গে লড়াইয়ে সাফল্য লাভ করার পর তিতুমির ২৪ পরগণার অন্তর্গত বাদুড়িয়া থানার ১০ কিলোমিটার দূরে নারকেলবেড়িয়ায় বাঁশের কেল্লা নির্মাণ করেন । তিতুমির নীলকর জমিদার এর বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করেন এবং তাদের কাছ থেকে রাজস্ব আদায় করেন ।

কৃষ্ণদেব রায়ের বিরোধিতা – ২৪ পরগণার পুঁড়া গ্রামের জমিদার কৃষ্ণদেব রায় ঘোষণা করেন, যারা তিতুমিরের অনুগামী হবে তাদের আড়াই টাকা করে কর দিতে হবে যার ফলস্বরুপ তিতুমিরের সঙ্গে কৃষ্ণদেব রায়ের সংঘর্ষ বাঁধে ।

যশোহরের ম্যাজিস্ট্রেট এক বিরাট বাহিনী নিয়ে তিতুমিরের ঘাঁটি আক্রমণ করলে প্রথমে তিতুমিরের বাহিনী সরকারী সৈন্যদের পরাজিত করে । পরে লর্ড বেন্টিঙ্ক তিতুমিরের বিরুদ্ধে বিশাল বাহিনী পাঠিয়ে বাঁশের কেল্লা ধ্বংস করলে তিতুমির বীরের মতো মৃত্যুবরণ করেন । তিতুমিরের মৃত্যুর সঙ্গে সঙ্গেই বারাসাত বিদ্রোহের অবসান ঘটে ।

কিছু প্রশ্ন

১) তিতুমির স্মরণীয় কেন?

উত্তর- তিতুমির নীলকর চাষিদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছিলেন এবং তিতুমিরের বাঁশের কেল্লার জন্য তিতুমির স্মরণীয় ।

২) তিতুমির এর পুরো নাম কি?

উত্তর- তিতুমির এর পুরো নাম মির নিশার আলি ।

৩) তিতুমির কাদের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করেছিলেন?

উত্তর- তিতুমির নীলকর চাষিদের প্রতি অন্যায়ের প্রতিবাদ জানাতে বিদ্রোহ ঘোষণা করেছিলেন ।

৪) বাঁশের কেল্লা ধ্বংস হয় কত সালে?

উত্তর- বাঁশের কেল্লা ধ্বংস হয় ১৮৩১ সালের ১৪ই নভেম্বর ।

আরও পড়ুন-

মিহিরকুল কে ছিলেন

গুপ্ত যুগকে সুবর্ণ যুগ বলা কি যুক্তিগত?

বাংলার নবজাগরণের প্রকৃতি, বৈশিষ্ট্য ও ফলাফল আলোচনা কর

Leave a Comment