ধনাত্মক আয়ন ও ঋণাত্মক আয়ন কাকে বলে উদাহরণ দাও?

হ্যালো, বন্ধুরা আজকে আমরা ধনাত্মক আয়ন ও ঋণাত্মক আয়ন কাকে বলে তা নিয়ে আলোচনা করছি । এটি রসায়ন বিজ্ঞান থেকে একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন ।

ধনাত্মক আয়ন ও ঋণাত্মক আয়ন কাকে বলে

আয়ন যথাক্রমে দুই প্রকার – ১) ধনাত্মক আয়ন ২) ঋণাত্মক আয়ন

ধনাত্মক আয়ন কাকে বলে

রাসায়ানিক বিক্রিয়ার সময় যেসব পরমানুগুচ্ছ ইলেকট্রন বর্জনের মাধ্যমে ধনাত্মক চার্জপ্রাপ্ত হয় তাদের ধনাত্মক আয়ন বা ক্যাটায়ন বলে ।

উদাহরণ – হাইড্রোজনের আয়ন (H+)

ঋণাত্মক আয়ন কাকে বলে

রাসায়ানিক বিক্রিয়ার সময় যেসব পরমাণুগুচ্ছ ইলেকট্রন গ্রহনের মাধ্যমে ঋণাত্মক চার্জপ্রাপ্ত হয়, তাদের ঋণাত্মক আয়ন বা অ্যানায়ন বলে ।

উদাহরণ – ক্লোরিনের আয়ন (Cl-)

আয়ন কাকে বলে

তরিৎগ্রস্থ পরমাণুকে আয়ন বলে ।

আয়নীয় যৌগ কাকে বলে

যে সমস্ত যৌগে আয়নীয় বন্ধন দেখা যায় তাদের আয়নীয় যৌগ বলে ।

আরও পড়ুন –

তড়িৎ বিশ্লেষ্য ও তড়িৎ অবিশ্লেষ্য পদার্থের মধ্যে পার্থক্য কি কি

সংযোজন বিক্রিয়া কাকে বলে? উদাহরণ দাও | রাসায়ানিক বিক্রিয়া কাকে বলে

ঊর্ধ্বপাতন কাকে বলে? | নিঃসরণ কাকে বলে?

শীতলীকরণ ও ঘনীভবন কাকে বলে? এদের মধ্যে পার্থক্য কি?

পটাশিয়াম কে ক্ষার ধাতু বলা হয় কেন – রসায়ন

Leave a Comment