নবরত্ন কাদের বলা হয়

আজকে আমরা নবরত্ন কি বা নবরত্ন কাদের বলা হয় তা নিয়ে আলোচনা করছি ।

নবরত্ন কাদের বলা হয়

সম্রাট দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্ত সাহিত্য ও সংস্কৃতির পৃষ্ঠপোষক ছিলেন । কথিত আছে যে তার রাজসভায় ৯ জন বিখ্যাত পণ্ডিত ও গুণী ব্যাক্তিছিলেন । এরা হলেন –

১) কালিদাস ২) বরাহমিহির ৩) বররুচি ৪) শঙ্কু ৫) বেতালভট্ট ৬) ঘটোকপর ৭) অমরসিংহ ৮) ক্ষপণক ৯) ধন্বন্তরি । এদের একত্রে বলা হয় নবরত্ন ।

১) কালিদাস – কালিদাস ছিলেন সংস্কৃত ভাষার অন্যতম কবি । তার বিখ্যাত গ্রন্থের নাম অভিজ্ঞানশুকুন্তলম, রঘুবংসম, কুমারসম্ভব, ও মেঘদূত।

২) বরাহমিহির – বরাহমিহির ছিলেন একজন দার্শনিক, গণিতজ্ঞ ও জ্যোতিবিজ্ঞানী ।

৩) বররুচি – বররুচি ছিলেন একজন সংস্কৃত পণ্ডিত ও ব্যাকরণ বিদ ।

৪) শঙ্কু – শঙ্কু ছিলেন একজন দক্ষ বাস্তুকার ।

৫) বেতালভট্ট – বেতালভট্ট ছিলেন একজন ব্রাহ্মণ ।

৬) ঘটোকপর – একজন কবি ও বাস্তুশিল্পী

৭) ক্ষপণক – ক্ষপণক ছিলেন একজন জ্যোতির্বিদ ।

৮) ধন্বন্তরি – ধন্বন্তরি ছিলেন একজন আয়ুর্বেদ ও শল্য চিকিৎসক।

৯) অমরসিংহ – অমরসিংহ ছিলেন সংস্কৃত কবি, ব্যাকরণবিদ এবং প্রাচীন ভারতের সর্বশ্রেষ্ঠ অভিধান রচয়িতা ।

কোন বিখ্যাত চৈনিক পর্যটক দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্তের রাজত্বকালে ভারতে আসেন ?

চৈনিক পর্যটক ফা-হিয়েন বৌদ্ধ তীর্থস্থান ভ্রমণ ও বৌদ্ধ শাস্ত্র গুলি সংগ্রহের জন্য দ্বিতীয় চন্দ্রগুপ্তের রাজত্বকালে ভারতে আসেন । তিনি প্রায়ই সাত বছর (৪০৫-৪১১ খ্রিস্টাব্দ ) ভারতে অবস্থান করেন । তার রচিত গ্রন্থটির নাম ফো-কুয়ো-কি ।

আরও পড়ুন –

ঠান্ডা যুদ্ধের কারণ ও পটভূমি আলোচনা কর

বাবর কি মুঘল সাম্রাজ্যের প্রকৃত প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন

সাম্প্রদায়িক রাজনীতি ও দেশভাগ

ভারতীয় রাজনীতিতে সাম্প্রদায়িকতা

Leave a Comment