পরমাণুর ধারণা ও পরমাণুর গঠন সমস্ত প্রশ্ন উত্তর

পরমাণুর ধারণা ও পরমাণুর গঠন সমস্ত প্রশ্ন উত্তর

পরমাণুর ধারণা ও পরমাণুর গঠন সমস্ত প্রশ্ন উত্তর

১) ইলেকট্রন কে আবিস্কার করেন ?
ক) জে জে থমসন খ) রাদারফোর্ড গ) জেমস সাডউইক ঘ) নীলস বোর
উত্তর- জে জে থমসন

২) কোনো পরমানুর ভরসংখ্যা হল-
ক) প্রোটন সংখ্যা খ) প্রোটন + ইলেকট্রন সংখ্যা গ) প্রোটন + নিউট্রন সঙ্খ্যা
উত্তর- প্রোটন + নিউট্রন সঙ্খ্যা

৩) কোন রশ্মিটি পজিটিভ তড়িৎ আধান বহন করে ?
ক) আলফা রশ্মি খ) বিটা রশ্মি গ) গামা রশ্মি ঘ) ক্যাথোড রশ্মি
উত্তর- আলফা রশ্মি

৪) সর্বপ্রথম কোন বিজ্ঞানী পারমানবিক মডেলের প্রস্তাব করেন ?
ক) রাদারফোর্ড খ) ডালটন গ) বোর ঘ) জে জে থমসন
উত্তর- জে জে থমসন

৫) প্রোটন কে আবিস্কার করেন ?
ক) জে জে থমসন খ) রাদারফোর্ড গ) নীলস বোর ঘ) গোল্ড স্টাইন
উত্তর- গোল্ড স্টাইন

৬) নিউট্রন বিহীন একটি পরমানু হল-
ক) প্রোটিয়াম খ) ডয়টেরিয়াম গ) টাইট্রিয়াম ঘ) হিলিয়াম
উত্তর- প্রোটিয়াম

৭) ক্লোরিন পরমানুর সর্ববহিস্ত কক্ষের ইলেকট্রন সংখ্যা কত ?
ক) ১ টি খ) ৪ টি গ) ৭ টি ঘ) ৩ টি
উত্তর- ৭ টি

৮) নিউট্রন আবিস্কার করেন ?
ক) থমসন খ) রাদারফোর্ড গ) জেমস সাডউইক ঘ) ক্রূক্স
উত্তর- জেমস সাডউইক

৯) নিউট্রন এর আধানের প্রকৃতি কিরুপ ?
ক) পজিটিভ খ) নেগেটিভ গ) তড়িৎ বিহীন ঘ) কোনটি নয়
উত্তর- তড়িৎ বিহীন

১০) সোডিয়ামের শেষ ইলেকট্রন টি কোন কক্ষপথে অবস্থান করে ?
ক) K খ) L গ) M ঘ) N
উত্তর- M

ডাল্টনের পরমাণুবাদ কি ?

808 খ্রিস্টাব্দে ইংরেজ বিজ্ঞানী স্যার জন ডালটন পদার্থের গঠন সম্পর্কে একটি সুনির্দিষ্ট বৈজ্ঞানিক তত্ত্ব প্রকাশ করেন । এই তত্ত্বটি ডালটনের পরমাণুবাদ নামে খ্যাত ।

Read More : লেন্স সম্পর্কিত সমস্ত প্রশ্ন ও উত্তর

ডাল্টনের পরমাণুবাদ এর মূল কথা গুলি হল

  • একই মৌলিক পদার্থের পরমাণুগুলি ওজনে ও ধর্মে অভিন্ন ।
  • সব পদার্থই অসংখ্য অতি ক্ষুদ্র অবিভাজ্য নিরেট কণা দ্বারা গঠিত । পদার্থের এই ক্ষুদ্রতম কণার নাম পরমাণু
  • বিভিন্ন মৌলিক পদার্থের পরমাণুগুলি পূর্ণসংখ্যার সরল অনুপাতে পরস্পর যুক্ত হয়ে যৌগিক পদার্থ উৎপন্ন করে ।
  • একই মৌলিক পদার্থের পরমাণুগুলি এক বা একের অধিক অনুপাতে যুক্ত হয়ে একাধিক যৌগিক পদার্থ উত্পন্ন করে । যেমন — NO, NO2, H2O, H2O2 ….. ইত্যাদি ।
  • পরমাণুগুলিকে রাসায়নিক প্রক্রিয়া দ্বারা ভাঙ্গা যায় না, সৃষ্টি করা যায় না বা ধ্বংস করা যায় না । পরমাণু অবিনশ্বর ও অবিভাজ্য ।

রাদারফোর্ড এর পরমাণুবাদ –

  • পরমাণুর একটি কেন্দ্র আছে। এই কেন্দ্রের নাম নিউক্লিয়াস। নিউক্লিয়াসের ভেতরে প্রোটন এবং নিউক্লিয়াসের বাইরে ইলেকট্রন অবস্থান করে।
  • সৌরজগতে সূর্যকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন কক্ষপথে যেমন গ্রহগুলো ঘুরে তেমনি নিউক্লিয়াসকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন কক্ষপথে ইলেকট্রনগুলো ঘুরছে। কোনো পরমানুর নিউক্লিয়াসে যে কয়টি প্রোটন থাকে নিউক্লিয়াসের বাইরে সেই কয়টি ইলেকট্রন থাকে। যেহেতু প্রোটন এবং ইলেকট্রনের আধান একে অপরের সমান ও বিপরীত চিহ্নের তাই পরমানুর সামগ্রিকভাবেই আধান শূন্য।
  • নিউক্লিয়াস অত্যন্ত ক্ষুদ্র এবং পরমানুর ভেতরে বেশির ভাগ জায়গাই ফাঁকা।

Read More : সমতল দর্পণ কাকে বলে, বৈশিষ্ট্য ও ব্যবহার

পরমাণুর গঠন

পদার্থের পরমাণু যথাক্রমে ইলেকট্রন, প্রোটন ও নিউট্রন দ্বারা গঠিত । কেবলমাত্র হাইড্রোজনের পরমাণুতে কোনো নিউট্রন নেই ।

ইলেকট্রন – পরমাণুর ক্ষুদ্রতম কণিকা ইলেকট্রন।১৮৯৭ খ্রিষ্টাব্দে স্যার জে. জে. থমসন সর্বপ্রথম ইলেকট্রনের অস্তিত্ব আবিষ্কার করেন ।ইলেকট্রনকে সাধারণত e প্রতীক দ্বারা প্রকাশ করা হয়ে থাকে ।

প্রোটন – প্রোটন ধণাত্মক আধান বিশিষ্ট কণিকা যা নিউক্লিয়াসের মধ্যে থাকে। ১৯১১ খ্রিষ্টাব্দে বিজ্ঞানী আর্নেস্ট রাদারফোর্ড প্রোটনের অস্তিত্ব প্রমাণ করেন।একটি পরমাণুতে ইলেকট্রনের সমান সংখ্যক প্রোটন থাকেএকে সাধারণত p দ্বারা প্রকাশ করা হয়ে থাকে।

নিউট্রন – ইলেকট্রন ও প্রোটনের ন্যায় নিউট্রনও একটি মৌলিক কণিকা তবে এটি আধানবিহীন ।নিউট্রন নিউক্লিয়াসের মধ্যে অবস্থান করে। ১৯৩২ সালে জেমস চ্যাডউইক নিউট্রন আবিষ্কার করেন ।

প্রত্যেকটি পরমাণু দুটি অংশে বিভক্ত – ১) ধনাত্মক তড়িৎযুক্ত পরমাণু-কেন্দ্রক বা পরমাণুর নিউক্লিয়াস এবং ২) নিউক্লিয়াসের বাইরে ইলেকট্রন-মহল

পরমাণুর নিউক্লিয়াস কাকে বলে

পরমাণুর কেন্দ্রে অবস্থিত একটি ক্ষূদ্রতম অংশ যার মধ্যে পরমাণুর সমস্ত ধনাত্মক আধান ও ভর অবস্থান করে তাকে পরমাণুর নিউক্লিয়াস বলে। নিউক্লিয়াস ধনাত্মক আধান যুক্ত কণিকা প্রোটন এবং তড়িৎ নিরপেক্ষ কণিকা নিউট্রন দ্বারা গঠিত

নিউক্লিয়াসের বাইরে ইলেকট্রন মহল

তড়িৎ নিরপেক্ষ পরমাণুতে প্রোটন ও ইলেকট্রন সমান সংখ্যায় থাকে । ইলেকট্রনগুলি নিউক্লিয়াসের বাইরে পরমাণুর বাকি অংশে বিভিন্ন কক্ষে বিন্যস্ত থাকে । ইলেকট্রনের এই বিন্যাসকে ইলেকট্রন-মহল বলে ।

পরমাণুর ক্ষুদ্রতম কণিকা কি ?

পরমাণুর ক্ষুদ্রতম কণিকা হল ইলেকট্রন ।

ইলেকট্রন এর আধান কত ?

ইলেকট্রন এর আধান -1.6×10−19 কুলম্ব

Leave a Comment