ভারতকে মৌসুমি জলবায়ুর দেশ বলা হয় কেন?

হ্যালো বন্ধুরা, আজকে আমরা ভারতকে মৌসুমি জলবায়ুর দেশ বলা হয় কেন এই প্রশ্নের উত্তরটি আজকের এই পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করছি । মাধ্যমিক এর ভূগোল বিষয়ের এই প্রশ্নটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রশ্নটি পরীক্ষাতে প্রায়ই এসে থাকে তাই প্রশ্নটি মন দিয়ে পড়ুন এবং খাতায় লিখে রাখুন ।

এর আগের পোস্টে আমরা আগ্নেয়গিরি কাকে বলে? আগ্নেয়গিরি কয় প্রকার ও কি কি তা নিয়ে আলোচনা করেছিলাম ।

ভারতকে মৌসুমি জলবায়ুর দেশ বলা হয় কেন

ভারতকে মৌসুমি জলবায়ুর দেশ বলা হয় কেন?

ভারতবর্ষ মৌসুমি জলবায়ুর অন্তর্ভুক্ত একটি দেশ । ভারতের প্রায়ই সমস্ত অঞ্চলেই মৌসুমি জলবায়ু বিরাজ করে । ভারতকে মৌসুমি জলবায়ুর দেশ বলা হয় কারণ-

১) গ্রীষ্মকালে আদ্র দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু এবং শীতকালে শীতল ও শুষ্ক উত্তর পূর্ব মৌসুমি বায়ু প্রবাহের ফলে ভারতের জলবায়ুতে দুই বিপরীতধর্মী ঋতুর সৃষ্টি হয় – আদ্র গ্রীষ্মকাল ও শুষ্ক শীতকাল ।

২) মৌসুমি শব্দটির উৎপত্তি আরবি শব্দ মৌসিম থেকে যার অর্থ ঋতু । ভারতবর্ষে ঋতু অনুসারে বায়ু প্রবাহিত হয় বলে ভারতকে মৌসুমি জলবায়ুর দেশ বলা হয় ।

৩) আদ্র গ্রীষ্মকাল ও শুষ্ক শীতকাল এই দুই মৌসুমি বায়ুর চক্রাকারে পরিবর্তনের ফলেই ভারতীয় জলবায়ুতে ঋতুচক্র সৃষ্টি হয় ।

৪) দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর আগমন কাল বর্ষাকাল, দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর আগমন কাল বর্ষাকাল, দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর প্রত্যাবর্তন কাল শরৎকাল ।

৫) উত্তর পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর আগমনকাল শীতকাল ।

জলবায়ু কাকে বলে?

কোন এক বিশাল অঞ্চলের কমপক্ষে ৩৫ বছরের আবহাওয়ার গড় অবস্থাকে বলা হয় জলবায়ু । আমাদের দেশ ভারতবর্ষ মৌসুমি জলবায়ুর অন্তর্ভুক্ত একটি দেশ ।

গর্জনশীল চল্লিশ কি?

পৃথিবীর দক্ষিণ গোলার্ধের ৪০ ডিগ্রি অক্ষাংশের পড়ে স্থলভাগ না থাকায় পশ্চিমা বায়ুর গতির ওপর বাধা কম পড়ে যার ফলে দক্ষিণ গোলার্ধে ৪০ থেকে ৬০ ডিগ্রি অক্ষাংশের মধ্যে বিস্তৃত দক্ষিণ পশ্চিম পশ্চিমা বায়ু সারাবছর এই প্রবল গতিতে অনবিরত প্রবাহিত হতে থাকে । প্রচণ্ড গতিতে এই বায়ু প্রবাহিত হওয়ায় এই বায়ু চল্লিশের অক্ষরেখা গুলি অতিক্রম করার সময় প্রচণ্ড শব্দ করে প্রাবিহত হয় এই কারণেই চল্লিশের অক্ষরেখা গুলিকে গর্জনশীল চল্লিশা বলে ।

পশ্চিমা বায়ু কাকে বলে?

উত্তর ও দক্ষিণ গোলার্ধের উপক্রান্তিয় উচ্চচাপ বলয় থেকে প্রাদেশীয় নিম্নচাপ বলয়ের দিকে সারাবছর নির্দিষ্ট পথে নিয়মিত ভাবে প্রবাহিত হয় এই দুই বায়ুকেই পশ্চিমা বায়ু বলে ।

পশ্চিমা বায়ু দুই প্রকার- ১) দক্ষিণ-পশ্চিম পশ্চিমা বায়ু ২) উত্তর পশ্চিম পশ্চিমা বায়ু ।

নিয়ত বায়ু কাকে বলে?

পৃথিবীর বায়ুরচাপ বলয়ের তারতম্যের কারণে বায়ু সারা বছর নিয়মিতভাবে একটি নির্দিষ্ট পথ থেকে আরেকটি নির্দিষ্ট পথে প্রবাহিত হতে থাকে, এই বায়ুকেই নিয়ত বায়ু বলে ।

আরও পড়ুন-

ক্ষয়চক্র কাকে বলে – তৃতীয় অধ্যায় ভূগোল SAQ

গ্রিন হাউস গ্যাস কি? গ্রিন হাউস গ্যাসের প্রভাব লেখ

আবহাওয়া ও জলবায়ুর মধ্যে পার্থক্য লেখ?

Leave a Comment