ভারতের চা উৎপাদনের অনুকূল ভৌগলিক পরিবেশ আলোচনা করো

হ্যালো বন্ধুরা, আজকে আমরা ভারতের চা উৎপাদনের অনুকূল ভৌগলিক পরিবেশ সম্পর্কে আলোচনা করছি ।

ভারতের চা উৎপাদনের অনুকূল ভৌগলিক পরিবেশ আলোচনা করো

ভারতের চা উৎপাদনের অনুকূল ভৌগলিক পরিবেশ

চা একপ্রকার চিরহরিৎ বৃক্ষের শুকনো পাতা বিশেষ । মৃদু উত্তেজক পানীয় হিসেবে চা খ্যাতিলাভ করেছে । বিশ্বের মোট চা উৎপাদনের মোট ২৬ শতাংশ চা উৎপাদন ও রপ্তানি করে ভারত বিশ্বে প্রথম স্থান অধিকার করেছে ।

চা উৎপাদনের অনুকূল পরিবেশ হল –

ভূপ্রকৃতি – পাহাড়ের জলনিকাশের সুবিধাযুক্ত ঢালু অংশ চা চাষের পক্ষে উপযুক্ত ।তবে জলনিকাশী সুবিধাযুক্ত ঢালু সমভূমিতে ও আজকাল চা চাষ করা হচ্ছে ।

উত্তাপ – চা চাষের আদর্শ তাপমাত্রা ২১-২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস হলেও ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা তেও চা চাষ করা যায় ।

বৃষ্টিপাত – গড়ে বছরে ২৫০ থেকে ৩০০ সেন্টিমিটার বৃষ্টিপাত চা চাষের পক্ষে উপযুক্ত ।

ছায়া প্রদানকারী বৃক্ষ – প্রচণ্ড সূর্যতাপ থেকে চা গাছকে রক্ষার জন্য চা বাগানের ধারে ধারে ছায়া প্রদানকারী বৃক্ষ লাগাতে হয় ।

মৃত্তিকা – লৌহ মিশ্রিত উর্বর দোআঁশ মাটি চা চাষের পক্ষে খুবই উপযুক্ত । তবে মাটিতে পটাশ ও ফসফরাস এর উপস্থিতি চায়ের সুগন্ধ বাড়ায় ।

সুলভ শ্রমিক – চা গাছের নিড়ানো, পরিচর্যা ও অগাছা পরিষ্কার করার জন্য প্রচুর দক্ষ ও অভিজ্ঞ শ্রমিকের প্রয়োজন হয় ।

প্রচুর মূলধন– প্রতিযোগিতামূলক বাজারে চায়ের উৎপাদন বাড়াতে এবং গুণগত মান বজায় রাখতে উন্নত প্রযুক্তি তথা উচ্চ ফলনশীল চারাগাছ, কীটনাশক ও রাসায়নিক সার ক্রয় এবং বাগিচা রক্ষণাবেক্ষণ, চা প্রক্রিয়াকরণ ও শ্রমিকের মজুরি প্রদানের জন্য প্রচার মূলধনের প্রয়োজন হয়।

পরিবহন ব্যবস্থা– চা বাগিচা থেকে চা বন্দরে প্রেরণ এবং সার, শ্রমিক, যন্ত্রপাতি ইত্যাদি বাগিচাগুলিতে আনয়নের জন্য বাগিচা-বাজার-বন্দরের মধ্যে উন্নত পরিবহন ব্যবস্থা গড়ে ওঠা প্রয়োজন।

সার প্রয়োগ – চা চাষে জমির উর্বরতা নষ্ট হয় বলে চা বাগানে পরিমিত অবস্থায় রাসায়ানিক ও জৈব সার প্রয়োগ করতে হয় ।

  • হেক্টর প্রতি চা উৎপাদনে তামিলনাডু রাজ্য ভারতে প্রথম স্থান অধিকার করেছে এবং অসম ও পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয় স্থান ও পাঞ্জাব তৃতীয় স্থান অধিকার করে ।

আরও পড়ুন

শীতকালে ভারতে গম চাষ হয় কেন

হিমবাহের ক্ষয়কার্যের ফলে সৃষ্ট ভূমিরূপ ছবি সহ

জোয়ার ভাটা কাকে বলে, সৃষ্টির কারণ আলোচনা করো

Leave a Comment