Mg কে মৃৎক্ষার ধাতু বলা হয় কেন? বৈশিষ্ট্য কি?

হ্যালো বন্ধুরা, আজকে আমরা Mg কে মৃৎক্ষার ধাতু বলা হয় কেন? তা নিয়ে বিস্তারিত ভাবে আলোচনা করছি । এটি রসায়ন বিজ্ঞানের একটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন তাই প্রশ্নটি ভালোভাবে মন দিয়ে পড়ে নাও ।

Mg কে মৃৎক্ষার ধাতু বলা হয় কেন

এর আগের পোস্ট এ আমরা রাসায়নিক বন্ধন কাকে বলে? রাসায়নিক বন্ধন কয় প্রকার ও কি কি?ভেদ কি কি?

Mg কে মৃৎক্ষার ধাতু বলা হয় কেন?

যে সকল ধাতু মাটিতে যৌগ হিসেবে সহজেই পাওয়া যায় এবং জলের সঙ্গে বিক্রিয়া করে ক্ষার তৈরি করে তাদেরকে মৃৎক্ষার ধাতু বলে ।

পর্যায় সারণীর গ্রুপ ২ এর মৌলগুলি মৃৎক্ষার ধাতু ।

উদাহরণ – ম্যাগনেসিয়াম ।

মৃৎক্ষার ধাতুর বৈশিষ্ট্য

এরা খুব তীব্র ক্ষারধর্মী হয় ।

মৃৎ ক্ষারধর্মী ধাতু গুলি পর্যায় সারণীর গ্রুপ ২ এ অবস্থিত ।

এদের যোজ্যতা ইলেকট্রন ২ ।

এরা সকলেই ধাতু ।

আরও পড়ুন –

তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ কাকে বলে উদাহরণ দাও

রাসায়নিক বন্ধন কাকে বলে? রাসায়নিক বন্ধন কয় প্রকার ও কি কি?

অধাতু কাকে বলে | অধাতুর বৈশিষ্ট্য লেখ

আভোগ্রেডোর সংখ্যা কাকে বলে | আভোগ্রেডোর সূত্র

আংশিক চাপ কাকে বলে? আংশিক চাপ নির্ণয়ের সূত্র

Leave a Comment